মহানগর

তৃণমূলে ফেরার জল্পনা বাড়িয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে বৈশাখী

  •  
  •  
  •  
  •  

বি.বি নিউজ ওয়েবডেস্ক:‌ তৃণমূলে ফিরবেন শোভন চট্টোপাধ্যায়-বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়? জল্পনা বাড়িয়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আড়াই মাসের মধ্যেই দীপাবলির আগে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে বৈশাখী। শনিবার বেলা একটা পাঁচ। নাকতলায় তৃণমূলের মহাসচিবের বাড়ির সামনে এসে দাঁড়াল বৈশাখীর গাড়ি। হাতে উপহার। থাকলেন ২ ঘণ্টারও বেশি সময়। সূত্রের খবর, পার্থ-বৈশাখীর কথা হয়েছে প্রায় দেড়ঘণ্টার কাছাকাছি।

বেরনোর পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বৈশাখী বললেন, ‘‌বয়োঃজেষ্ঠ্য পার্থদা’‌–কে বিজয়ার প্রণাম করতে গিয়েছিলেন। তাঁদের মধ্যে কোনওরকম রাজনৈতিক আলাপ আলোচনা প্রসঙ্গে বৈশাখীর মন্তব্য, তিনি এবং পার্থ চ্যাটার্জি দুজনেই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হলেও ‘‌আমি রাজনীতি থেকে অনেক দূরে।’

শোভন চ্যাটার্জি সম্পর্কিত প্রশ্ন একরকম এড়িয়ে গিয়ে বৈশাখী বললেন, ‘‌আমার ব্যাপারটা আমি বলতে পারি। শোভনদা শোভনদার ব্যাপারটা বলবেন। এটা আমি জানি না। তবে ওনার নিঃশ্বাসে রাজনীতি। কিন্তু যে দলে উনি গিয়েছেন, সেখানে ওনাকে সক্রিয়ভাবে ব্যবহার করতে দেখছি না। উনি সক্রিয় রাজনীতিতে ফিরুন সেটাই চাইব।’‌
কয়েক মাস আগে বিজেপিতে একসঙ্গে যোগ দেন শোভন চ্যাটার্জি এবং তাঁর বান্ধবী বৈশাখী ব্যানার্জি। কিন্তু তার সাতদিনের মধ্যেই তাঁরা দল থেকে নিষ্কৃতি চেয়ে চিঠি দেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে। যদিও সেই নিষ্কৃতি এখনও মেলেনি। গরহাজির থেকেছেন কলকাতায় অমিত শাহের সভায়। মাঝমধ্যেই নিজের দল বিজেপি সম্পর্কে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বৈশাখী।

সেব্যাপারে বৈশাখী বললেন, তাঁরা একটা দলে যোগ দিয়েছিলেন সম্মান নিয়ে থাকতে। কিন্তু সেই দলের কিছু কার্যকলাপে আশাহত হয়েই রেহাই চেয়েছেন।

অক্টোবরে পার্থর জন্মদিন। রয়েছে বিজয়াও। সূত্রের খবর, বৈশাখী পার্থর বাড়িতে গিয়ে তাঁকে প্রণাম করেছেন। আলোচনায় শোভনের প্রসঙ্গ এসেছে অনিবার্যভাবেই। পার্থর মন্তব্য, ‘শোভন সম্পর্কে জানতে চেয়েছি। চলে গেলেই যে সুস্থতা কামনা করব না, এমন সংস্কৃতিতে আমরা বিশ্বাসী নয়। তবে খেলোয়াড় নই, তৃণমূলের মহাসচিব। সুতরাং রাজনীতির কথা হবে না এটা হয়?’

তাহলে কি শোভন- বৈশাখী তৃণমূলের কাছাকাছি আসছেন? দীর্ঘদিন বিজেপির কর্মসূচিতে দেখা যাচ্ছে না তাঁদের। তার উপর এদিন পার্থ-বৈশাখী সাক্ষাৎ। রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা তো বাড়বেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *