বিদেশ

উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচার ও নজরদারি চালানোর দায়ে চীনের ২৮ সংস্থাকে আমেরিকার কালো তালিকাভুক্তি

  • 893
  •  
  •  
  •  
    893
    Shares

বি.বি নিউজ ডিজিটাল ডেস্কঃ মুসলিম দেশগুলি যা করতে পারেনি একা আমেরিকা তা করার সাহস দেখালেন । সৌদি আরবের যুবরাজ কিংবা পকিস্থানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান চিনের সঙ্গে বন্ধুত্ব করতে যখন ব্যস্ত ঠিক তখনই উইঘুর মুসলিমদের উপর নজরদারি চালানোর দায়ে চিনের ২৮টি সংস্থাকে কালো তালিকাভুক্ত করল ট্রাম্প প্রশাসন।

চীনের পশ্চিমাঞ্চলীয় জিনজিয়াং প্রদেশের অধিবাসী উইঘুর মুসলিমদের ওপর অমানবিক, অকথ্য নির্যাতন ও নিপীড়নে জড়িত থাকার অভিযোগে দেশটির ২৮টি প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাকে কালোতালিকাভুক্ত করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এই সিদ্ধান্তের ফলে প্রতিষ্ঠানগুলো ওয়াশিংটনের অনুমতি ছাড়া কোনো মার্কিন পণ্য কিনতে পারবে না। সোমবার মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এ নিষেধাজ্ঞা জারি করে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি। এর ফলে বিশাল আর্থিক ক্ষতির মুখে চীন।

তাদের নথিতে কালো তালিকায় ফেলা এসব প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাগুলো ‘মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নিপীড়নে জড়িত’ বলে দাবি করা হয়েছে।

এ সম্পর্কে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কালোতালিকাভুক্ত এই ২৮টি প্রতিষ্ঠান চীনের দমন অভিযান, নির্বিচারে আটক এবং উইঘুর, কাজাখসহ দেশটির অন্যান্য মুসলিম সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্যদের ওপর অত্যাধুনিক প্রযুক্তির নজরদারিতে জড়িত।

কালো তালিকাভুক্ত সংস্থাগুলির মধ্যে ১৯টিই চিনের সরকারি সংস্থা। জিনজিয়াং প্রদেশের পাবলিক সার্ভিস ব্যুরো তার মধ্যে অন্যতম।বেসরকারি সংস্থার মধ্যে রয়েছে হিকভিশন, দাহুয়া টেকনোলজি, মেগভি টেকনোলজির মতো সংস্থা, যারা মূলত মুখাবয়ব থেকে ব্যক্তি চিহ্নিতকরণের কাজ করে। হিকভিশন বিশ্বের অন্যতম বড় নজরদারি প্রযুক্তি ও পণ্য প্রস্তুতকারী সংস্থা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *