মহানগর

রাস্তায় জিমন্যাস্টিকস দেখানো দুই বিস্ময় জেসিকা খান ও আজাজুদ্দিনের দায়িত্ব নেবে সরকার

  •  
  •  
  •  
  •  

বিবি নিউজ ওয়েবডেস্কঃ গার্ডেন রিচের (Garden Reach) দুই খুদে জিমন্যাস্ট (Gymnast) জেসিকা খান ও মহম্মদ আজাজুদ্দিনের জিমন্যাস্টিক্স দেখে থ হয়ে গিয়েছেন স্বয়ং নাদিয়া কোমানেচি (Nadia Comaneci)। পাঁচবারের অলিম্পিক পদকজয়ী কিংবদন্তি জিমন্যাস্ট নাদিয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ১৫ সেকেন্ডের এক ভিডিও নিজের টুইটারে শেয়ার করে লেখেন‌, ‘দিস ইজ অওসাম!’

স্কুলের ইউনিফর্ম পরিহিত দুই বালক বালিকার চমৎকার জিমন্যাস্টিক্স ভাইরাল হওয়ার পর জানা যায় তাদের নাম জেসিকা খান ও মহম্মদ আজাজুদ্দিন। জেসিকার বয়স ১১, মহম্মদ আজাজুদ্দিনের বয়স ১২। এক প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া তথা সাই-তে তারা বুধবার গিয়েছিল ট্রায়ালের জন্য। এবং ওখানেই তাদের পূর্ণ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

সাই-এর আঞ্চলিক অধিকর্তা মনমিত সিং গোইন্দি জানিয়েছেন, ‘‘গার্ডেন‌ রিচের ওই দুই বালক-বালিকা, যাদের কার্টহুইল ভিডিও ভাইরাল হয়েছে এবং ১৯৭৬ অলিম্পিকের সোনাজয়ী নাদিয়া কোমেনেচি তাদের প্রশংসা করেছেন, তারা আজ কলকাতায় সাই-এর পূর্বাঞ্চলীয় শাখায় এসেছিল। সাই তাদের হস্টেলে রাখবে এবং কলকাতায় প্রশিক্ষণ দেবে।”

এমনকি কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজুও মুগ্ধ হয়েছেন খুদে সেই শিক্ষার্থীদের জিমন্যাস্টিকস দেখে। রিজিজু বলেন, এ দুই শিক্ষার্থী খাঁটি প্রতিভা। তাদের জিমন্যাস্টিক অ্যাকাডেমিতে ভর্তির দায়িত্ব নেব আমি।

তিনি টুইট করে দু’জনের তারিফ করে জানান, ‘‘আমি খুশি নাদিয়া কোমানেচি টুইট করেছেন এটি। প্রথম জিমন্যাস্ট যিনি পারফেক্ট টেন স্কোর করেছিলেন ১৯৭৬ মন্ট্রিল অলিম্পিক্সে, এবং তারপরও আরও ছ’বার পারফেক্ট টেন স্কোর করে তিনটি স্বর্ণপদক জিতেছিলেন তাঁর এমন করাটা সত্যিই খুব স্পেশাল। আমি ওই বাচ্চাগুলির সঙ্গে দেখা করতে ইচ্ছুক।”

উল্লেখ্য ভাইরাল ভিডিওতে প্রথমে একটা ছেলেকে একদম সঠিক একটা সমরসল্ট করতে দেখা যায়, এরপর মেয়েটিকে ডবল সমরসল্ট করে খুবই সুন্দরভাবে ব্যালেন্স রক্ষার সাথে নিচে আসতে দেখা যায়। এই দুই স্কুল পড়ুয়া শুধু যে সমরসল্ট দিতে ওস্তাদ তাই নয়, সেই সাথে সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো, তাদের কাঁধে স্কুলের ব্যাগ ছিল। ভারী ব্যাগ থাকা সত্ত্বেও তাদের ব্যালেন্স ছিল অসাধারণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *