রাজ্য

নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটালে এবার বড় সাজা, জরিমানার সঙ্গে হতে পারে জেলও, চিনিয়ে দেবে ড্রোন

  •  
  •  
  •  
  •  

বি.বি নিউজ ওয়েবডেস্কঃ প্রত্যেক বছর শহরে শব্দ দানবের দৌরাত্ম্য রুখতে যৌথ অভিযান চালায় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ ও পুলিশ। এবার নিষিদ্ধ শব্দবাজি পোড়ালে পাঁচ বছর পর্যন্ত জেল এবং সেই সঙ্গে এক লাখ টাকা জরিমানা হতে পারে। রবিবার কলকাতা এবং সংলগ্ন এলাকার বেশ কিছু বড় আবাসনের প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠকে এমনই সতর্কতা শোনানো হয়েছে। এ দিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কলকাতা, ব্যারাকপুর, হাওড়া এবং বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের প্রতিনিধিরাও।

দুষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের মেম্বার সেক্রেটারি রাজেশ কুমার এদিন বলেন, এ বছর থেকে পর্ষদ এনভায়রনমেন্ট প্রোটেকশন অ্যাক্ট (১৯৮৬)-র ১৫ নম্বর ধারা কঠোর ভাবে প্রয়োগ করবে নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটানোর ক্ষেত্রে। ওই আইন অনুসারে অপরাধ প্রমাণিত হলে পাঁচ বছর পর্যন্ত জেল ও সঙ্গে ১ লাখ টাকা জরিমানা হতে পারে।

কালীপুজোর দিনে শব্দবাজি পোড়ানো নিয়ে সবথেকে বেশি অভিযোগ আসে বিভিন্ন আবাসনের বিরুদ্ধে। কলকাতা ও আশপাশের জেলার এই সব আবাসনেই বেশি বেশি শব্দবাজি ফাটানো হয় বলে অভিযোগ। অথচ পুলিশ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কিছু করতে পারে না।

বহুতলের ছাদের পোড়ানো হচ্ছে কি না তা জানতে কলকাতা সহ বিভিন্ন কমিশনের পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছে৷ পর্ষদ বৈঠকে জানিয়েছে, পুজোর সময় রাস্তায় নজরদারি করে কীভাবে শব্দতাণ্ডব কমানো যায়, সে দিকে নজর রাখা হবে৷ এবার পরিকল্পনা রয়েছে, শহরের বিভিন্ন বহুতলের উপর নজরদাবি বাড়াতে আকাশে ওড়ানো হবে ড্রোন৷ কোন বহুতলে কোন ধরেন বাজি পোড়ানো হচ্ছে, তাও নজর রাখা হবে৷ ড্রোন উড়িয়ে ভিডিওগ্রাফি করে অভিযুক্তদের চিহ্নিত করা হবে বলেও জানা গিয়েছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *