Recent News ধর্ম ও দর্শন

পুজো মণ্ডপেও পরিবেশ ভাবনা, শিশুদের অঙ্কনে ফুটে উঠল সচেতনতা

  • 133
  •  
  •  
  •  
    133
    Shares

সেখ জিন্নাত আলি, বিবি নিউজ, হুগলি, ৫ই অক্টোবর : দর্শনার্থী, সদস্য এবং শিশুদের মনে পরিবেশ ভাবনা ছড়িয়ে দিতে বসে আঁকো প্রতিযোগিতাকে হাতিয়ার করল হুগলি জেলার নৈটি গোয়াবাগান দুর্গোৎসব কমিটি। এবছর ৩৭ তম বর্ষে পদার্পণ করল এই পুজো। প্রতিবছরের মত এবছরেও পুজো অর্চনার পাশাপাশি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে সমাজ সচেতনতা। আজ সকাল ৯ টার সময় শুরু হয় অঙ্কন প্রতিযোগিতা। এতে অংশগ্রহণ করে ১৪৫ জন প্রতিযোগি। প্রত্যেকের অঙ্কনে ফুটে উঠল সচেতনতা। জল সঙ্কট, জলদূষণ, পরিবেশ দুষন ও তার সমাধান সংক্রান্ত বেশ কিছু ছবি ছিল নজর কাড়া।

বিভিন্ন গ্রুপ থেকে ৩ জন করে প্রতিযোগিকে এদিন পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়া প্রত্যেক অংশগ্রহণকারীর হাতে একটি করে চারাগাছ শান্তনা পুরস্কার হিসাবে তুলে দেওয়া হয়। পুজো প্রাঙ্গণে অঙ্কন প্রতিযোগিতা, বিষয় নির্বাচন এবং পুরস্কারের উপকরণে পরিবেশ সচেতনতা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে পুজো উদ্দোক্তাদের।

সমগ্র পরিকল্পনা রুপায়ন এবং বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে পুজো কমিটির সম্পাদক সুব্রত মণ্ডল, সহ সম্পাদক তমাল ঘোষ, যুগ্ম সভাপতি সুনীল মণ্ডল, অর্জুন নাড়, সহ সভাপতি দেবানন্দ সিং, যুগ্ম হিসাব পরীক্ষক মোহর ঘোষ, অভিজিৎ ঘোষ, যুগ্ম কোষাধ্যক্ষ মহেশ মণ্ডল, কৌশিক ঘোষ, আদায়কারী সুভাষ মণ্ডল, প্রসেনজিৎ ঘোষ, চন্দ্রকান্ত ঘোষ এবং রাকেশ পাল সহ সকল সদস্যবৃন্দের সহযোগিতায়।

এখানে বলা প্রয়োজন যে, কয়েকদিন আগেই চেন্নাইয়ের জলসঙ্কট সকলের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। লাগামছাড়া দাম এবং জলের অপ্রতুলতা সকলের মনে বিশেষ প্রভাব ফেলেছে। বৃষ্টির অপ্রতুলতা, ভূগর্ভের জল তুলে বাজারজাত করা, দুষিত জলের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া এই সমস্যাকে আরো প্রকট করেছে। পাশাপাশি চলছে অবাধে গাছ কেটে ফেলা, নদী ও জলাশয়ে প্লাস্টিক ও আবর্জনা ফেলা। শুধু জল সঙ্কট বা জল দুষন নয়। প্রতিদিন বিভিন্ন ভাবে দূষিত হচ্ছে মাটি, বাতাস এবং পরিবেশের অন্যান্য অংশ। এই সমস্যা থেকে নিস্তার পেতে হলে সাবধানতার পাশাপাশি প্রয়োজন সচেতনতার। কমবেশি সকলেই উদ্দ্যোগী হলে জল সঙ্কট, জলদূষণ এবং পরিবেশ দুষনের হাত থেকে কিছুটা হলেও নিস্তার পাওয়া যেতে পারে। বৃক্ষরোপণ তার মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ। সেদিক থেকে দেখলে পুজো উদ্দোক্তারা আঁকা প্রতিযোগিতার মাধ্যমে সচেতন করা থেকে শুরু করে চারা গাছ প্রদানের মাধ্যমে যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছেন এতে কোন সন্দেহ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *