Bengal Breaking News
রাজ্য

‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করিয়ে কানধরে ওঠবোস মুসলিম ব্যক্তিকে, গ্রেপ্তার ১ অভিযুক্ত আপসি মিঞা

  •  
  •  
  •  
  •  

বিবি নিউজ ওয়েবডেস্কঃ ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করে এক মুসলিম ব্যক্তিকে কান ধরে ওঠবোস করানোর অভিযোগ উঠেছে একদল বিজেপি সমর্থকের বিরুদ্ধে৷ মাস খানেক আগে কোচবিহারের তুফানগঞ্জে এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই তড়িঘড়ি পদক্ষেপ নেয় প্রশাসন৷

তল্লাশি চালিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে এই ঘটনায় অভিযুক্ত সন্দেহে একজনকে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ গোটা ঘটনায় অন্যান্য জড়িতদের খোঁজ চলছে৷ ঘটনার সূত্রপাত মাস খানেক আগের৷

অভিযোগ, তুফানগঞ্জের বাসিন্দা আজগর শেখকে জোর করে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে জোর করে জনা কয়েক যুবক। তারা সকলেই বিজেপি কর্মী, সমর্থক বলে এলাকায় পরিচিত৷ আজগর আগে এলাকায় তৃণমূল সমর্থক ছিলেন।

লোকসভার পর কোচবিহারের রাজনৈতিক হাওয়া বদল হওয়ার পর থেকে তৃণমূলের সঙ্গে আজগরের তেমন আর যোগাযোগ নেই, এমনই জানিয়েছেন ঘনিষ্ঠরা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আজগরকে কান ধরে ওঠবোস করানোর সঙ্গে সঙ্গে রীতিমত হুঁশিয়ারি দিচ্ছে একদল যুবক৷ বলা হচ্ছে, ‘মমতার নাম করবি না।
এখন থেকে মোদির নাম বলবি সবসময়ে। যদি তৃণমূলের কারও সঙ্গে যোগাযোগ করতে দেখি, তাহলে কিন্তু খুব খারাপ হবে। আজ তোকে দয়া করে ছেড়ে দিলাম।

এরপর দেখা যায়, আজগরকে চড় মারছে এক যুবক৷ তাদের হুঁশিয়ারিতে রীতিমত আতঙ্কিত হয়ে সমস্ত অত্যাচার মুখ বুঝে সহ্য করে যাচ্ছেন আজগর৷ এবং তাঁকে দিয়ে প্রায় জোর করে বলানো হচ্ছে, ‘মমতার নাম নিই না। তৃণমূলের কারও সঙ্গে যোগাযোগ করি না।

এই ভিডিও প্রকাশিত হতেই বিজেপি পালটা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিল। তাতে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, এই কাজ তাঁদের নয়। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল এটা। অকারণ বিজেপির নাম জড়ানো হচ্ছে। তাই যথাযথ তদন্তের দাবি তুলেছিল বিজেপিও।

এই ভিডিও ভাইরাল হতেই তড়িঘড়ি পদক্ষেপ নিয়েছে প্রশাসন। কারা এমন কাণ্ড ঘটিয়েছে, তার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তাদের তৎপরতায় ধরা পড়েছে আপসি মিঞা নামে এক ব্যক্তি৷ বিকাশ রায় নামে আরেকজন ঘটনায় যুক্ত বলে জানা গিয়েছে৷। তাদের খোঁজে চলছে তল্লাশি।
কোচবিহারের পুলিশ সুপার সন্তোষ নিম্বালকর জানিয়েছেন, এরকম একটি ঘটনা ঘটেছে। আক্রান্ত ব্যক্তি নিজেই অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!